Breaking News
Home / গ্রামগঞ্জ / লালমনিরহাটে শীত না আসতেই শৈত্য প্রবাহ।

লালমনিরহাটে শীত না আসতেই শৈত্য প্রবাহ।

ওসমান গনিঃ-লালমনির হাট জেলা প্রতিনিধিঃ  বাংলাদেশ ছয় ঋতুর  দেশ, কালের আবর্তন ও বিবর্তনে মনে হচ্ছে, বাংলাদেশে এখন দুটি ঋতু  বিদ্যমান, একটি শীত অন্যটি গরম।

দেশের সর্ব উত্তরের জেলা লালমনিরহাটে শীতকাল না আসতেই শুরু হয়েছে শৈত্য প্রবাহ। আগাম শীত বার্তা শুরু হয়েছে।
দিনের বেলা প্রচন্ড গরম থাকলেও বেলা ডুবার সাথে সাথেই ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। হিমালয় থেকে বয়ে আসছে হিমেল হাওয়া।

রাত ৮ টার পর থেকেই কুয়াশাচ্ছন্ন হয়ে চেনা রাস্তা গুলিকেও অচেনা মনে হচ্ছে। এতে করে স্থানীয়দের মনে শঙ্কা দেখা দিয়েছে যে এবারে শীতের প্রকোপ দ্বিগুন বাড়তে পারে।

গত কয়েকদিন থেকে দিনের বেলায় মেঘলা আকাশ সহ সূর্যের আলো প্রস্ফুটিত হচ্ছে না,এবং সন্ধ্যা নামতেই শীত অনুভূত হচ্ছে। হিমেল হাওয়ার সঙ্গে কমছে রাতের তাপমাত্রা।

রাত যত গভীর হয়, কুয়াশার দাপট ততই বাড়ে,বিশেষ করে,যারা রাত্রিকালীন মোটর বাইক চালায়, কুয়াশার দাপটে কাপড় চোপর ভিজে যাওয়ার কারনে রেইনকোর্ট পরিধান করে,অতি সতর্কতার সহিত ধীর গতীতে তাদেরকে বাইক চালাতে হচ্ছে।

আগাম কুয়াশার আগমনে স্হানীয় কৃষকরা রয়েছেন ভয়াবহ দুশ্চিন্তায়। কুয়াশার কারনে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে গিয়ে শীতকালীন সবজীর ফলন খুব কম হয়। কোন প্রকার কীটনাশক ও ছত্রাক নাশক স্প্রে করেও ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

আবহাওয়ার এ বিরুপ পরিবর্তনের কারনে,শিশু ও বৃদ্ধরা, সর্দি, জ্বর,কাশীঁ,সহ ঠান্ডা জনিত বিভিন্ন রোগ ব্যাধীতে আক্রান্ত হচ্ছে। এবং শীতকালীন বিভিন্ন প্রকার সবজীর ফলন চরম ভাবে ব্যহৃত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

লিংক কম্পিউটার যশোর এর বিজ্ঞাপন

About বাংলা ভোর

সবার আগে আমরা

Check Also

মহেশপুরের পরানপুরে কলাগাছের সাথে শত্রুতা।

শামীম খাঁন, নিজস্ব প্রতিবেদক ।। ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার এস’বিকে ইউনিয়নের পরানপুর শফিয়ার রহমানের ১৯ শতক …